ব্রিটেনের রানিকে রাষ্ট্রপ্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দিচ্ছে বেশকিছু রাষ্ট্র!

উপনিবেশবাদের আনুষ্ঠানিক পতন ঘটেছে সেই কবে। তবে ব্রিটিশ কলোনির অন্তর্ভুক্ত বেশিরভাগ রাষ্ট্রেই ব্রিটেনের রানিকে আনুষ্ঠানিক রাষ্ট্রপ্রধানের পদে রাখা হয়েছিল। সম্প্রতি রানি এলিজাবেথকে আনুষ্ঠানিক রাষ্ট্রপ্রধানের পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে বার্বাডোজ। বিশ্লেষকরা বলছেন, এ তালিকায় আছে আরও অনেক রাষ্ট্র। একে একে ব্রিটেনের রাজপরিবারের ছায়া থেকে বেরিয়ে আসতে যাচ্ছে আরও কিছু রাষ্ট্র।

নিউজউইকের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বার্বাডোজের এই সিদ্ধান্ত উসকে দেবে আরও অনেক রাষ্ট্রকে।এই তালিকায় প্রথমদিকেই আছে জ্যামাইকার নাম। দেশটিতে রানিকে সাংবিধানিক পদে রাখা না রাখার বিষয়ে গণভোটের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল পিপলস ন্যাশনাল পার্টি নামের একটি দল। যদিও সম্প্রতি তারা সাধারণ নির্বাচনে পরাজয় বরণ করেছে। তবু ধারণা করা হচ্ছে, জ্যামাইকাও অনুসরণ করবে বার্বাডোজের পথ।

রাজতন্ত্র বিরোধী অ্যাক্টিভিস্ট গ্রাহাম স্মিথ বলেন, প্রিন্স চার্লস রাজা হওয়ার পর আরও অনেক রাষ্ট্র এমন সিদ্ধান্ত নেবে। কমনওয়েলথভুক্ত অনেক দেশ সে সময় পর্যন্ত অপেক্ষায় আছে।

অনেকেই মনে করছেন, কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোতে ব্রিটিশ রাজপরিবারের সাংবিধানিক স্বীকৃতি আর বেশিদিন টিকবে না। পতনের শুরুটি করে দিলো বার্বাডোজ। বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দেশটির এক সরকারিঘোষণায় বলা হয়েছে, উপনিবেশিক অতীত পেছনে ফেলার সময় চলে এসেছে। স্বাধীনতা লাভের ৫৫তম বার্ষিকী ২০২১ সালের নভেম্বরের মধ্যে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চায় দেশটি।

এদিকে, প্রতিক্রিয়ায় ব্রিটেনের রাজপ্রাসাদের তরফে বলা হয়েছে, এটি একেবারেই বার্বাডোজের জনগণ ও সরকারের বিষয়।

ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জের অন্যতম সমৃদ্ধ ও জনবহুল দেশ বার্বাডোজ। ১৯৬৬ সালে ব্রিটেন থেকে স্বাধীনতা লাভ করলেও এখনও দেশটির সাংবিধানিক প্রধান রানি এলিজাবেথ। এক সময়ে প্রবলভাবে চিনি রফতানির উপর নির্ভরশীল দেশটির অর্থনীতি বর্তমানে পর্যটন ও অর্থায়নের মতো খাতে বিস্তৃত হয়েছে। ২০১৮ সালে দেশটির প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী মিয়া মোত্তেলি নির্বাচিত হন। তিনি দায়িত্ব নিয়েই নেন নতুন এই সিদ্ধান্ত। অবশ্য, ক্যারিবীয় অঞ্চলের সাবেক ব্রিটিশ উপনিবেশগুলোর মধ্যে থেকে গণপ্রজাতন্ত্রী হয়ে ওঠতে চাওয়া প্রথম দেশ বার্বাডোজ নয়। ১৯৭০ এর দশকেই গণপ্রজাতন্ত্রী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে গায়ানা, ত্রিনিদাদ ও টোব্যাগো ১৯৭৬ সালে এবং ডোমিনিকা ১৯৭৮ সালে একই পথ অনুসরণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *