অবৈধ প্রবেশকারীদের নিয়ে আবারও উত্তেজনা ব্রিটিশ প্রশাসনে

সমুদ্রপথে ব্রিটেনে প্রবেশের চেষ্টা প্রতিদিনই বাড়ছে। সাগরপথে এসব অবৈধ প্রবেশকারীদের নিয়ে আবারও উত্তেজনা ব্রিটিশ প্রশাসনে। গেল বৃহস্পতিবার, ফ্রান্স থেকে একদিনেই ২৩৫ জন অভিবাসনপ্রত্যাশী প্রবেশের চেষ্টা করে যুক্তরাজ্যে। এরপর থেকেই ইংলিশ চ্যানেলে টহল বাড়িয়েছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ।

ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ইংলিশ চ্যানেলে সতেরোটি  নৌকাকে বাধা দেয়া হয়। অনুপ্রবেশ ঠেকাতে ফ্রান্স’সহ পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর সাথে আলোচনায় বসার প্রস্তুতি নিচ্ছেন নেতারা।

কেন্ট কাউন্টি কাউন্সিলের প্রধান রজার গফ বলেন, যেভাবেই হোক না কেন এই আশ্রয়প্রার্থীদের আসা ঠেকাতে হবে। কারণ এভাবে যদি মানুষ ভেসে ভেসে আসতে থাকে তাহলে তাদের জায়গা দেয়াটাই কঠিন। ফ্রান্স এবং ব্রিটিশ সরকারের উচিত এখনই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসা। কোনোভাবেই কেন্টকে গ্রিসের ক্যালে দ্বিপের মতো হতে দেয়া যাবে না।

ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ বলছে, করোনা মহামারীর সুযোগে ফ্রান্স থেকে ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ব্রিটেনে প্রবেশ করছে এসব অভিবাসী।এদের মধ্য নারী-শিশুও র‍য়েছে।

ব্রিটেনের মন্ত্রী নিক গিব বলেন, আমরা চেষ্টা করছি প্রতিবেশি দেশগুলোর সাথে আলোচনায় বসতে। তবে ব্রেক্সিটের পর জোট এখন আর নেই ব্রিটেন। একারণেই বিষয়টির সুরাহাও এখন কঠিন। তবে আমরা যেভাবেই হোক, এ ধরণের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বদ্ধ পরিকর।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বলছে, এ বছর প্রায় তিনশত টি নৌকায় করে প্রায় চার হাজার মানুষ ব্রিটেনে প্রবেশের চেষ্টা করে। গেল মাসেই ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে দুই হাজারের বেশি মানুষ প্রবেশ করে ব্রিটেনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *