গ্যালারিতে দর্শক ফেরাতে চান বরিস

এবার মাঠে দর্শক প্রবেশের অনুমতি দিতে যাচ্ছে ব্রিটিশ সরকার। অক্টোবরে ইংল্যান্ডের গ্যালারিতে দর্শক ফেরাতে চান বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। সব স্বাস্থ্যবিধি মেনেই মাঠে প্রবেশের সুযোগ পাবেন তারা। খেলার আবেদন ফিরিয়ে আনতেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন বরিস জনসন।

করোনাভাইরাসকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে, দীর্ঘ বিরতি শেষে সবার আগে ক্রিকেট মাঠে ফিরিয়েছে ইংল্যান্ড। লা লিগা কিংবা সিরিআ’র আগে, দেশটিতে শুরু হয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ-ইপিএলও। তবে ক্রিকেট কিংবা ফুটবল, সবই চলছে দর্শকবিহীন স্টেডিয়ামে।দর্শকদের অপেক্ষার পালা ফুরোচ্ছে। ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে এসেছে ঘোষণা। বছরের শেষভাগ থেকে আর টিভি সেটের সামনে নয়, গ্যালারিতে বসেই খেলা উপভোগের সুযোগ পাবেন ভক্তরা।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ‘আমরা অক্টোবর থেকে মাঠে দর্শক ফেরাতে চাই। তবে তখনও সামাজিক দূরত্ব সহ সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।’ক্রিকেট কিংবা ফুটবল, দুটোরই মূল আকর্ষণ দর্শক। গ্যালারিজুড়ে সমর্থকদের চিৎকারে উৎসাহ খুঁজে পান খেলোয়াড়রা। আবার নিজের প্রিয় দলের খেলা মাঠে বসে কে না উপভোগ করতে চান! সবকিছুই কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস। তবে ইংলিশ প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য সমর্থকদেরকে আবারো সাহস যোগাবে।ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ‘ কয়েক মাস ধরেই আমরা টের পাচ্ছি, বড় বড় খেলাগুলোতে দর্শক যখন থাকে না তখন কি পরিণতি হয়! খেলোয়াড়দের খেলায়ও প্রভাব পড়ে, সমর্থকরা কষ্ট পায়। আর্থিকভাবেও অনেক পিছিয়ে পড়তে হয়। সবমিলিয়েই আমরা এমন সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছি। আমি খুব সন্তুষ্ট যে, দর্শকদের জন্য আবারো স্টেডিয়ামের দরজা খুলে দিতে পারছি আমরা।’গেল ১৭ জুন শুরু হয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল। ২০ জুন শুরু হয় এফএ কাপ। ৮ জুলাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টের মাধ্যমে ক্রিকেটও ফেরে ইংল্যান্ডে। ক্রিকেট-ফুটবল ছাড়াও গলফ, ঘোড়দৌড় এবং স্নুকার খেলা শুরু হয়েছে দেশটিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *